Ultra Protagonist's World

প্রারম্ভিক

এখন গ্রীষ্মকাল…

এই অদ্ভুত ভ্যাপসা ভারতীয় গরমকে প্রায় ভুলতেই বসেছিলাম । আমেরিকার সুখ – আহ্লাদ – বৈভব- আরাম মাঝের পাঁচ বছরে যে কতখানি অভ্যেস খারাপ করে দিয়েছিল তা এখন হাড়ে হাড়ে বুঝতে পারি । বাল্যকালে পুরুলিয়ার গ্রীষ্মের ৪৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং প্রাকযৌবনে কানপুরের ৪৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস ( লু সমেত) অভিজ্ঞতার ভাঁড়ারে না থাকলে এইদিন গুলোয় আরও বেশি কষ্ট পেতাম । সেই দিন গুলোর স্মৃতি মনে করে আজকাল কষ্ট লাঘব হচ্ছে অনেকটাই। আজ তেতে পুড়ে ( রোদে নয়, বেশিটাই সন্ধ্যেবেলায় মাটি থেকে উঠে আসা তাপে) বাড়ি ফিরে একদফা স্নান সেরে , শরবত – টরবত খেয়ে খানিক রুডিয়ার্ড কিপ্লিং পড়ছিলাম। কিছু সত্যিকারের বর্ণনামূলক জীবন্ত ভাষা রপ্ত করার তাগিদে । ক্লান্তিতে কখন যে চোখ লেগে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়েছিলাম নিজেরই খেয়াল নেই । হঠাৎ আধো ঘুমে কেমন যেন জল পড়ার শব্দ পেলাম একটানা । মনে হল যেন বৃষ্টি নেমেছে । ঘুমের মধ্যেই কেমন যেন একটা আরাম বোধ হল । খানিক পরে ঘুম পাতলা হল, এবং যথাসময়ে ভেঙ্গেও গেল । মগজে বৃষ্টিচিন্তা নিয়ে ভেজা সিঁড়ি , ভেজা উঠোন দেখার লোভে দরজা খুলে দেখলাম সব মিথ্যে, সব মায়া। কোনও বৃষ্টি হয়নি কোথাও । দুদণ্ড পরে টের পেলাম , ঘুমের মধ্যে যে জলের অঝোরধারার শব্দ শুনেছিলাম, তা পাশের বাড়ির প্লাস্টিকের প্যাটন ট্যাঙ্ক ওভার ফ্লো হবার শব্দ এবং বেশিক্ষণ সে শব্দ থাকেও নি । মনের মধ্যেকার আকাঙ্ক্ষা স্বপ্নের ভিতরে আকারে মাত্রাতিরিক্ত বর্ধিত হয়েই মরীচিকা সুখের জন্ম দিয়েছিল। সেখান থেকে বাস্তবে ফিরে এসে মেজাজ তো বিগড়ে গেলই ; শুধু তা-ই নয়, দিনের চাইতেও অনেক বেশি গরম লাগতে থাকলো এবং সঙ্গী হল একটা তীব্র অস্বস্তিবোধ । মনে হচ্ছিল ভাসমান বরফের টুকরো দিয়ে সাজানো চৌবাচ্চার জলে শরীরটা ছুড়ে দিতে পারলেই বুঝি একমাত্র স্বস্তি মিলবে । এভাবে কষ্টের পরিমাণ কল্পনার সঙ্গে তাল মিলিয়ে বেড়েই চলতে লাগলো । শেষে যখন মনে মনে ভাবলাম যে বৃষ্টি আসার আগে অবধি এ বছর আর জলের ফোঁটার কথা পর্যন্ত ভাববো না , ঠিক তখনি মাত্র একবারের জন্যেই (কাকতালীয় ভাবে কি? , না কি এও দৈবেরই এক পরীক্ষা? ) একটু ঠাণ্ডা হাওয়া ঘরের সামনে দিয়ে ঘুরে গেল। লোভের বশপরবর্তী হয়ে মায়া বাড়িয়ে আর জানালা খুললাম না । “নেতি” তেই স্বস্তি ফিরে এলো বরং, শান্তি ফিরে এলো ।

Advertisements

About Anand Sehgal

A graduate researcher, A writer, A poet, A singer, A composer,An actor..............An artist by heart

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

Information

This entry was posted on April 6, 2017 by in মুক্তগদ্য, রম্যরচনা, সমকাল and tagged , , .
%d bloggers like this: